সেক্সে মধুর উপকারিতা অনেক মধুকে বলা হয় মহাঔষধ

সেক্সে মধুর উপকারিতা অনেক মধুকে বলা হয় মহাঔষধ
5 (100%) 7 votes

সেক্সে মধুর উপকারিতা অনেক। স্বাস্থ্য রক্ষায় এবং যাবতীয় রোগ নিরাময়ে মধুর গুণ অপরিসীম। আয়ূর্বেদ এবং ইউনানী চিকিৎসা শাস্ত্রেও মধুকে বলা হয় মহৌষধ। বলা হয়ে থাকে মৃত্যু ব্যতীত সকল রোগের মহাঔষধ হলো মধু! এটি হচ্ছে আল্লাহ প্রদত্ত এক অপূর্ব নেয়ামত।  বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণে মধুতে ১৮১টি রাসায়নিক উপাদান পাওয়া গেছে। এই প্রাকৃতিক নির্যাসটি কৃত্রিমভাবে তৈরি করা সম্ভব নয়। মধু কখনো পচে না। কারণ, এটি নিজেই একটি পচনরোধক। ইউনানি, আয়ুর্বেদিক ওষুধের একটি প্রধান উপাদান মধু। আমরা বাজার থেকে যে মধু কিনে আনি তা যে কতটুকু খাঁটি তা বলা মুশকিল। সেক্সে মধুর উপকারিতা পেতে হলে অবশ্যই খাটি মধু খেতে হবে। তাই খাটি মধু চিনতে পড়ুন এই লেখাটি – খাটি মধু চেনার উপায় ।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সেক্সে মধুর উপকারিতা

খাটি মধুর বৈশিষ্ট্য

  • খাটি মধুতে কখনো কটু গন্ধ থাকে না।
  • মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক কোনো বিষাক্ত উপাদান প্রাকৃতিক গাছে থাকলেও তার প্রভাব মধুতে থাকে না।
  • মধু সংরক্ষণে কোনো পৃজারভেটিভ ব্যবহৃত হয় না। কারণ মধু নিজেই পৃজারভেটিভ গুণাগুণ সম্পন্ন পুষ্টিতে ভরপুর খাদ্য।
  • মধু উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাত, নিষ্কাশন, সংরক্ষণ ও বোতলজাতকরণের সময় অন্য কোনো পদার্থের সংমিশ্রণ প্রয়োজন হয় না।
  • খাটি মধু পানির গ্লাসে ড্রপ আকারে ছাড়লে তা সরাসরি ড্রপ অবস্থায়ই গ্লাসের নিচে চলে যায়।

সেক্সে মধুর উপকারিতা

মুলত স্নায়ুতন্ত্র ( autonomic part of central nervous system) ও রক্ত সংবহনতন্ত্র (circulatory system) Autonomic nervous system এর Parasympathetic part লিংগকে উত্থিত করে আর Sympathetic part বীর্যপাত ঘটায়। আসলে লিংগ মোটা করা কিংবা লম্বা করার মত কোনো ব্যাবস্থা এখনো পর্যন্ত তৈরি হয়নি। আপনি যদি লিংগ মোটা করার জন্যে কোনো কিছু করতে চান তাহলে সেটা আপনার জন্যে বিপদ ডেকে আনতে পারে। লিংগে মধু মালিশ করলে কোন ক্ষতি নেই। কারন – পেনসিলভেনিয়া স্টেট কলেজের পরীক্ষায় দেখা গেছে বাজারে যত ঔষধ পাওয়া যায় তার চেয়ে অনেক বেশী কার্যকর এক চামচ মধু। যাদের যৌন দুর্বলতা রয়েছে তারা যদি প্রতিদিন মধু ও ছোলা মিশিয়ে খান তাহলে বেশ উপকার পাবেন। সেক্স বৃদ্ধির জন্য মধু গরম দুধের সঙ্গে পান করলে খুবই ভালো ফল পাওয়া যায়। প্রতিদিন কালোজিরা মধু দিয়ে চিবিয়ে খেলে বা দৈনিক দুই চামচ আদার রস মধু দিয়ে খেলে প্রচুর পরিমাণে যৌন শক্তি বৃদ্ধি পায়। আপনি এই লেখাটা পড়ে দেখতে পারেন – Applying Honey And Ginger On Penis  

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদানে ভরপুর মধুতে রয়েছে এনজ়াইম ও আয়রন, জ়িঙ্ক, পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, ফরফরাস, ম্যাগনেশিয়াম, সেলেনিয়ামের মতো খনিজ পদার্থ। এছাড়াও রয়েছে ভিটামিন B6, থিয়ামিন, রিবোফ্ল্যাভিন ও নিয়াসিন। বাজারে বিক্রি হওয়া ব্র্যান্ডেড ও শিশি বন্দি প্রসেসড্ মধুর অনেক গুণ নষ্ট হয়ে যায়। তাই ব্যান্ডেড মধু ব্যবহার না করতে চেষ্টা করুন। সরাসরি মৌমাছির চাক থেকে সংগ্রহ করা কাঁচা মধুই সেরা। এর স্বাদও কড়া ও অনেক বেশি স্বাস্থ্য গুণে ভরপুর। তবে উপায় না থাকলে, বাজার থেকে কেনা মধুই ব্যবহার করুন। কাঁচা মধুতে উপস্থিত গ্লাইসেমিক ইন্ডেক্স (glycemic index) হজমশক্তি বাড়ায়। এর প্রকৃতিক উপাদান, যেমন ভিটামিন ও মিনারেল কলেস্টেরল লেভেল কমায়। শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমিয়ে ঝরঝরে করে তোলে। এর অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এবার দেখে নিন সেক্সে মধুর উপকারিতা পেতে রসুন ও মধুকে কীভাবে একসঙ্গে খাবেন।

৩-৪ টে গোটা রসুন
১ কাপ কাঁচা মধু
ঢাকাওয়ালা ছোটো কাচের শিশি

পদ্ধতি – রসুনের কোয়াগুলিকে আলাদা আলাদা করে নিন। কোয়া গুলির খোসা ছাড়িয়ে নিন।  এবার সেই কোয়াগুলিকে ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে কাঁচের শিশিতে ভরে নিন। কাঁচা মধু ঢেলে দিন ভিতরে। চামচ দিয়ে বের করে নিন বুদবুদ,যাতে হাওয়া না থাকে। খেয়াল করুন রসুনের কোয়াগুলি যাতে মধুর মধ্যে পুরোপুরি ডুবে থাকে। ঢাকনা দিয়ে শিশির মুখ বন্ধ করে দিন। এভাবে  কিছুদিন ফ্রিজে রেখে দিন। আবার ঘরের স্বাভাবিক তামমাত্রায় রাখতে পারেন। দেখবেন, যেন গরম বা সূর্যের রোদ শিশির গায়ে না লাগে। না হলে রসুনের অ্যালিসিন ও অন্যান্য গুণ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে এক চামচ রসুন মধু খালি পেটে খেতে থাকুন। কিছুদিনের মধ্যেই দেখতে পাবেন চোখে পড়ার মতো পরিবর্তন। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ার পাশাপাশি যৌন সমস্যা দূর হবে এবং সেক্সে মধুর উপকারিতা বুঝতে পারবেন হাতেনাতে।

মধুর ব্যবহার

মধুতে প্রাকৃতিক শক্তি অনেক বেশি। তাই পুরাতন মধু লিঙ্গে মাখলে সহজে বীর্যপাত হয় না এবং লিঙ্গ অনেক বেশি শক্ত হয় যৌন অক্ষমতা দূর করে এবং অটুট যৌবন ধরে রাখে। যৌন অক্ষমতা দূর করার জন্য বিশ্বের প্রখ্যাত মধু বিজ্ঞানীদের মতে দৈনিক লিঙ্গে মধু মাখলে  লিঙ্গ শক্ত হয় এবং সহবাসে দীর্ঘসময় পাওয়া যায়। নিয়মিত মধু সেবন করলে ধাতু দুর্বল (ধ্বজভঙ্গ) রোগ হয় না। তবে লিঙ্গে মধু মাখার পর তা ১০ মিনিট রাখতে হবে তার পরে ধুয়ে ফেলবেন।

1,829 total views, 3 views today

এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে

আপনার মন্তব্য লিখুন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন