রসুন আপনার শরীরের জন্য কি কি উপকার করবে

রসুন আপনার শরীরের জন্য কি কি উপকার করবে
5 (100%) 6 votes

রসুন রান্নায় অনন্য স্বাদ যুক্ত করে। শত্তিশালী সুঘ্রাণের কারণে সবজি, মাংস থেকে শুরু করে চিকেন বিরিয়ানি রান্না রসুন ছাড়া চিন্তাই করা যায় না।  উপমহাদেশের রান্নায় দীর্ঘদিন ধরেই রসুন (Garlic) ব্যবহার হচ্ছে। আর বহির্বিশ্বে এর পরিচিতি কম নয়। রসুনের উপকারিতা অনেক তাই রসুনকে অনেকেই বলে থাকেন ‘পাওয়ার হাউস অব মেডিসিন অ্যান্ড ফ্লেভার’। Garlic is the oldest known medicinal plant variety or spice in existence. It belongs to the genus Allium and is native to Central Asia. Mankind recognized the curative qualities of this magic herb over 3,000 years ago. আপনি আরো জানতে পড়তে পারেন এই লেখাটি – 13 Interesting Benefits of Garlic

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

কারণ কাঁচা বা সিদ্ধ রসুনের কোয়া সেবনে শরীর সুস্থ থাকে। আর নিয়মিত সেবনে অনেক রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। ভারত উপমহাদেশে আদিকাল থেকেই বিভিন্ন রোগে কাঁচা রসুন সেবনের প্রচলন আছে। এ ছাড়া আরো অনেক কাজে রসুনের ব্যবহার হয়। অনেক সংস্কৃতিতেই এখনো রসুনের ব্যবহার বেশ প্রচলিত। আমাদের পূর্বপুরুষরা পোকা দমণে রসুনের ব্যবহার করেছেন, তেমনি মধ্যযুগে ইউরোপবাসী এটি ব্যবহার করেছেন প্লেগ রোগ দমনে। এক নজরে দেখেনিন, রসুন আপনার শরীরের জন্য কি কি উপকার করবে।

রসুন

* রসুন হৃদপিণ্ডের সুস্থতায় কাজ করে। কোলেস্টেরল কমায়। এতে করে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমে।

*  শিরা উপশিরায় প্লাক জমতে বাঁধা প্রদান করে। রক্ষা করে শিরা উপশিরায় মেদ জমার মারাত্মক রোগ অথেরোস্ক্লেরোসিসের হাত থেকে।

* উচ্চ রক্ত চাপের সমস্যা দূর করে।

* গিঁট বাতের সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

* ফ্লু এবং শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে।

* অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান দেহে খারাপ ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ, জন্ম এবং বংশবিস্তারে বাঁধা প্রদান করে।

* যক্ষ্মা রোগের হাত থেকে রক্ষা করে।

*  দেহের বিভিন্ন অংশের পুঁজ ও ব্যথাযুক্ত ফোঁড়ার যন্ত্রণা কমায়।

*  হজমশক্তি বাড়ায় ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে।

* কোলন ক্যান্সার,গলব্লাডার ক্যান্সার প্রতিরোধ করে এবং স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। রেক্টাল ক্যান্সারের হাত থেকে রক্ষা করে। প্রোস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতেও সহায়তা করে।

* পরিপাকতন্ত্রের নানা সমস্যা দূর করে।

* শিরা উপশিরায় জমাট বাঁধা রক্ত ছাড়াতে সহায়তা করে।

*  ক্ষুধামন্দা ভাব দূর করে।

* দেহের অভ্যন্তরীণ ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং কৃমি ধ্বংস করে।

* চোখে ছানি পড়ার হাত থেকে রক্ষা করে।

* ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

*  আঁচিলের সমস্যা সমাধান করে।

* দাদ, খোস-পাঁচড়া ধরণের চর্মরোগের হাত থেকে রক্ষা করে। চামড়ায় ফোসকা পড়ার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেয়।

* রসুনের ফাইটোনসাইড অ্যাজমা সমস্যা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

* ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। রসুন খেলে মানসিক চাপ দূরে পালাবে। সারবে স্নায়বিক সমস্যাও।

*শরীরকে বিষমুক্ত করতে রসুন কাজে আসে। এছাড়া কৃমি, জ্বর, ডায়াবেটিসও নিয়ন্ত্রণে রাখে রসুন।

* যক্ষ্মা, নিমোনিয়া, ব্রংকাইটিস, ফুসফুসের সংক্রমণ, কনজেশন, হাপানি, হুপিং কাশি ইত্যাদি প্রতিরোধ করে।

* রসুন ও মধুর মিশ্রণ বিভিন্ন ধরনের  সংক্রমণ, ঠান্ডা, জ্বর, কফ ইত্যাদি সারাতে বেশ ভালো কাজ করে। রসুন এবং মধুর উপকারিতা অনেক। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। কেবল সাতদিন রসুনের ও মধুর মিশ্রণ খেলে বিভিন্ন সংক্রমণ থেকে শরীরকে অনেকটাই রক্ষা করা যায়।

সতর্কতা
অতিরিক্ত  খেলে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ, বমিভাব হতে পারে।

120 total views, 1 views today

এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে

আপনার মন্তব্য লিখুন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন