প্রেমের ছন্দ – ৫০ টি ভাললাগার মতো প্রেমের ছন্দ

প্রেমের ছন্দ – ৫০ টি ভাললাগার মতো প্রেমের ছন্দ
5 (100%) 1 vote

প্রেমের ছন্দ পাঠাতে কে না চায় তার প্রিয় মানুষটিকে। প্রিয়জনকে প্রেমের ছন্দ পাঠালে সে নিশ্চয় খুশি হবে। প্রেম ভালোবাসা বিধাতার এক দারুণ সৃষ্টি। প্রেম ভালোবাসার মধ্যে রয়েছে স্বর্গের সুখ এবং শান্তি। মানুষ তাঁর প্রিয়জনদের মন জয় করার জন্য সকল প্রকার চেষ্টাই করে থাকে। একজন আরেকজনকে ভালোবেসে পাঠায় প্রেমের কবিতা, প্রেমের গান কিংবা প্রেমের ছন্দ । তাই আপনিও আপনার প্রিয়জনকে ভালবেসে পাঠান প্রেমের ছন্দ আর চুটিয়ে প্রেম করুন।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

প্রেমের ছন্দ

প্রেমের ছন্দ – (১)

শুধু তুমি আছো তাই, আমি কথা খুঁজে পাই,
দূর হতে আমি তাই, তোমায় দেখে যাই
তুমি একটু হাসো তাই, আমি চাঁদের মিষ্টি আলো পাই।

হাজার তারা চাইনা আমি, একটা চাঁদ চাই,
হাজার ফুল চাইনা আমি একটা গোলাপ চাই.
হাজার জনম চাইনা আমি একটা জনম চাই,
সেই জনমে যেন শুধু তোমায় আমি পাই।

তুমি আমার রঙিন স্বপ্ন, শিল্পীর রঙে ছবি,
তুমি আমার চাঁদের আলো, সকাল বেলার রবি,
তুমি আমার নদীর মাঝে একটি মাত্র কুল,
তুমি আমার ভালোবাসার শিউলি বকুল ফুল।

দিন যায় দিন আসে, সময়ের স্রোতে ভেসে,
কেউ কাঁদে কেউ হাসে, তাতে কি যায় আসে,
খুঁজে দেখো আসে পাশে,
কেউ তোমায় তার জীবনের চেয়ে বেশি ভালোবাসে।

দুঃখ আছে মনে মনে,
বলবো আমি কার সনে,
শোনার মতো মানুষ নাই,
তাই নিজের কষ্ট নিজেই পাই,
যেদিন পাবো তার দেখা,
বলবো আমার মনের সব কথা।

আমি হলাম আকাশ, কষ্ট আমার মেঘ,
জোস্না আমার আবেগ, বৃষ্টি আমার কান্না,
রোদ আমার হাসি, কি করলে বুঝবে-
বন্ধু তোমায় আমি কত ভালোবাসি !

তুমি আমার রঙিন স্বপ্ন, শিল্পীর রঙ্গে ছবি. তুমি আমার চাঁদের আলো, সকাল বেলার রবি.. তুমি আমর নদীর মাঝে একটি মাত্র কূল, তুমি আমার ভালবাসার শিউলি বকুল ফুল।

দিন যায় দিন আসে, সময়ের স্রোতে ভাসে. কেউ কাঁদে কেউ হাঁসে, তাতে কি যায় আসে. খুঁজে দেখো আশে পাশে, কেউ তোমায় তার জীবনের চেয়ে বেশি ভালবাসে।

আমার শোকে ছড়িয়ে দিও ,
জবা ফুলের লাল,
বন্ধু আমি তোমার নিশী,
জাগবো চির কাল।

বন্ধুত্ব হলো, হাত এবং চোখের মধ্যে সম্পর্কের মতন. যখন হাতে কোনো আঘাত লাগে, তখন চোখের অশ্রু ঝরে. আবার, যখন চোখের অশ্রু ঝরে, তখন হাত টা মুছে দেয়।

রাতের আকাশে তাকালে দেখি লক্ষ্য তারার মেলা,
এক চাঁদকে ঘিরেই যেন তাদের যত খেলা..
বন্ধু অনেক পাওয়া যায় বাড়ালেই হাত,
আমার কাছে তুই যে বন্ধু ..ওই আকাশের চাঁদ…!

ভালবাসতে বাসতে আমি হইলাম ফতুর,
তুমি বিলাই সেজে বানাইলে মোরে ইঁদুর।
ভালবাসতে বাসতে আমি হইলাম ফতুর…
কাছে আসতে দেওনা,না দেও যাইতে দূর,
শাসন করছ এমন যেমন মক্তবের হুজুর।
ভালবাসতে বাসতে আমি হইলাম ফতুর।

প্রেমের ছন্দ – (২)

আগে বলতে আমি নায়কের মত সুন্দর,
এখন কথায় কথায় বল আফ্রিকান বান্দর।
কেন যে করতে গেলাম পিরীতি,
নিজের হাতে ডেকে আনলাম দুর্গতি।

বুদ্ধি আমার হইছে ভোঁতা,খাইতে খাইতে প্রেমের গুঁতা,
গুড্ডি বানাই উড়াও মোরে তোমার হাতে রাইকা সুতা।

আবার যদি রৌদ্র উঠে,
মেঘ কেটে যায় মনের..
আমি তোমার সঙ্গী হবো,
বন ফুলো বনের।

সারা শহর খুঁজে বেড়াই,
তোমার যদি দেখা পাই,
চোখ বুজলেই তোমায় দেখি,
খুললে দেখি তুমি নাই।

রোজ সকালে রোদ পোহাতে,
তোমার বাড়ি যাই.
ধর বন্ধু আমার ঘরে,
শীতের কাঁথা নাই।

আমি এখন অন্ধকারে মেঘ লেগেছে চাঁদে,
তবু আমার বাসরী মন তোমার জন্য কাঁদে।

আবার যদি বৃষ্টি নামে — আমিই তোমার প্রথম হবো…
লেপ্টে যাওয়া শাড়ির মতো — অঙ্গে তোমার জড়িয়ে রবো।

মন বলে কিছু কথা,
হৃদয়ে আছে গাঁথা,
মনের মাঝে লুকিয়ে আছে না বলা অনেক বেথা,
যদি সময় থাকে শুনে নিও আমার কিছু কথা..
আমি এখন বড্ড একা।

সবুজ বনের ছোট্ট পাখি,
অবুঝ তার মন.
কেউ জানেনা জগৎ জুড়ে
কে তার আপনজন.
আপন মনে ঘুরে বেড়ায়
নীল্ আকাশের বুকে.
তাইতো নিজে দুখী হয়েও,
সুখী সবার চোখে…।

আজকের এই দিন গুলো কাল স্মৃতি হয়ে যাবে,
মনের খাতায় কোনো পাতায় লেখা হয়ে রবে।
কালকে এই পাতা গুলো একটু উল্টে দেখো,
আবছা সব স্মৃতির মাঝে আমায় খুঁজে পাবে।

হারিয়ে গেছে অনেক কিছু – সকাল থেকে রাত,
হারিয়ে গেছে পাশা পাশি আঁকড়ে ধরা হাত.
হারিয়ে গেছে প্রথম প্রেমে টুকরো হওয়া মন,
চলতে চলতে হারিয়ে গেছে বন্ধু কতোজন।

কিছু স্বপ্ন চিরকাল থেকে যায়, কিছু উত্তর আজো মেলেনা, কিছু কথা আজো মনে পড়ে, কিছু সৃতি চোখে জল আনে, মরেও মরে না কিছু আশা, এরই নাম ভালবাসা।

প্রেমের ছন্দ – (৩)

কখনো যদি দেখা হয়ে যায় দুজনার পথ চলার পথে, সে দিন ও দেখবে তুমি, আমি আছি বসে তোমারি পথো চেয়ে।

যতো দুরে যাও না কেন আছি তোমার পাশে,
তাকিয়ে দেখো আকাশ পানে ঘুম যদি না আসে।
কাছে আমায় পাবে তুমি হাত বাড়াবে যেই,
যদি না পাও জানবে সেদিন আমি যে আর নেই।

রাতে চাঁদ, দিনে আলো.
কেন তোমায় লাগে ভালো ?
গোলাপ লাল, কোকিল কালো
সবার চেয়ে তুমি ভালো.
আকাশ নীল, মেঘ সাদা.
গোয়াল ঘরে,তুমি …..বাধা।

আমার স্বপ্ন জলধারায় তুমি,
রিমঝিম সুরে ঝরা বৃষ্টি.
আমার হৃদয় canvus জুড়ে,
তুমি আমারি অপূর্ব সৃষ্টি।

আমার শীতের মেঠো পথে তুমি,
আমারি ছিটানো নিষ্পাপ শিশির.
আমার গোধুলির আকাশে তুমি,
আমারি রাঙানো রক্তিম আবির..
আমার জোসনার সোনালী আলোয় তুমি,
আমারি বাজানো বাশির সুর.
আমার গ্রীষ্মের তীব্রতায় তুমি,
ভালবাসার ক্লান্ত অলস দুপুর।

মন খোঁজে সারাক্ষণ মনের মত মন,
মনের আশা পূরণ করতে তোমায় প্রয়োজন.
শূন্য মনে লুকিয়ে আছে অনেক গুলো আশা,
তার মধ্যে উননতম তোমার ভালবাসা।

তাকেই ভালবাস… যে তোমাকে কষ্ট দেয় … তাকে কষ্ট দিও না … যে তোমায় ভালবাসে … হয়ত পৃথিবীর কাছে তুমি কিছুই না … কিন্তু কারো কারো কাছে তুমিই তার পৃথিবী।

মাটির বন্ধু মেঘ.
মেঘের বন্ধু বৃষ্টি.
বৃষ্টির বন্ধু শ্রাবন.
যে বাঁচিয়ে রাখে সৃষ্টি.
এই সৃষ্টির মাঝে তুমি – আর তোমার মাঝে আমি।

পৃথিবীটা তোমারি থাক,
পারলে নীল্ রং দিও,
আকাশটা তোমারি থাক,
কিছু তারা দিও,
মেঘ টাও তোমারি থাক,
একটু ভিজিটে দিও,
হৃদয়টা তোমারি থাক,
পারলে একটু জায়গা দিও।

প্রেমের ছন্দ – (৪)

তুমি তার জন্য হাঁসো, যে তোমার জন্য কাঁদে. তুমি তার জন্য হারো, যে তোমার জন্য জেতে আজীবন তুমি তাকেই ভালোবেসো, যে তোমাকে তোমার থেকেও বেশি ভালবাসে।

জীবনের প্রদীপকে ভালবাসার তেল দিয়ে জালিয়ে রাখো।
কারণ সূর্য পূর্ব দিকে উদিত হয়ে পশ্চিমে অস্ত যায়।
কিন্তু ভালবাসার উদয় হৃদয়ে হয়….মৃতুতেই সে অস্ত যায়…।

ভালোবেসে কাছে টেনে, জল দিলে আঁখি ভরে. চলে গেছ দুঃক্ষ নাই, আজো তোমায় ভুলি নাই।

বৃষ্টি ভেজা আমার আকাশ – মনটা তাই উদাস উদাস, মেঘের সাথে মিষ্টি কথন – দুই নয়নে অঝর শ্রাবন, আমি আছি যেমন তেমন – বল তুমি আছ কেমন?

চোখের কোনে জমে আছে একটু খানি পানি,
মুছে দিতে আসবেনা কেউ এ-কথাও জানি…
অনেক আপন ছিলে তুমি হঠাত হলে পর,
আমার খবর নাইবা নিলে, তোমার কি খবর ?

আমাদের ছোট নদী চলে বাঁকে বাঁকে —
জানুয়ারী মাসে তার হাটু জল থাকে….
পার হয়ে যায় গরু পার হয় গাধা —
তোর কথা মনে পড়ে ওরে হারামজাদা…।

সূর্য গেছে মেঘের বাড়ী,
ডুবে গেছে বেলা.
একটু খবর নিলেনা যে,
আমায় ভুলে গেলা….
আকাশের ওই নিরবতার কোনো জুড়ি নাই,
মনে রেখ আমি তোমায় আজো ভুলি নাই।

বন্ধু বলে ডাক যারে,
সে কি তোমায় ভুলতে পারে ?
যেমন ছিলাম তোমার পাশে,
আজ আছি ভালোবেসে.
থাকব আমি তেমনি করে,
বন্ধু হয়ে চিরতরে।

চাঁদের গভীরে আছে রাত-! রাতের গভীরে আছে ঘুম-! ঘুমের গভীরে আছে স্বপ্ন-! স্বপ্নের গভীরে আসো তুমি-! আর, তোমার গভীরে আছে শুধু “শয়তানি”।

তুম চাঁদ নেহি,
চাঁদ কি রশ্নি হো.
তুম ফুল নেহি,
হার ফুলো কি খুশবু হো.
তুম ইনসান নেহি,
ইনসান কি রূপ মে বান্দর হো…।

তোমার অসুখ হোক, তোমার ঘরে মশা আসুক, তোমার মাথা খারাপ হোক, তোমার স্বপ্নে ভুত আসুক, সারা রাত শীত লাগুক – তা আমি চাইনা কারণ তুমি আমার ফ্রেন্ড।

প্রেমের ছন্দ – (৫)

আমি মেঘের মতো চেয়ে থাকি.
চাঁদের মতো হাঁসি.
তারার মতো জলে থাকি,
বৃষ্টির মতো কাঁদি.
দূর থেকে বন্ধু তোমার কথা’ই শুধু ভাবি…।

নরম হাতের মিষ্টি লেখা.
বন্ধু আমি বড় একা.
চাঁদের গায়ে জোসনা মাখা.
মনটা আমার ভীষণ ফাঁকা.
ফাঁকা মনটা পূরণ কর.
বন্ধু আমায় Kiss,থুক্কু! Miss কর।

স্বপ্ন আমার অনেক ছিল বন্ধু তোমায় ঘিরে,
স্বপ্ন দিয়ে কেন তুমি আসলেনা আর ফিরে?.
মন যে আমার অচীন পাখি নেই তার কোনো খোজ,
বন্ধু তোমায় মনে পড়ে সকাল সন্ধা রোজ।

আমি যার সাথে বেশি অভিমান করি, আমি নিজেও জানিনা আমি তাকে কত ভালবাসি. কারণ অভিমান তার সাথে হয়, যার সাথে মনের অজান্তে গভীর ভালবাসা রয়।

তুমি বৃস্টি ভেজা পায়ে সামনে এলে মনে হয়-
আকাশের বুকে যেন জল ছবি এঁকে যায় .
তুমি হাসলে বুঝি মনে হয়,
স্বপ্ন আকাশে পাখি ডানা মেলে দেয়।

তোমার জন্য মেঘ গুলো ভেসে যাচ্ছে আকাশে,
তোমার জন্য স্বপ্নঘুড়ি উড়ছে ভেসে বাতাসে,
তোমার জন্য আছে আমার বুক ভরা ভালোবাসা,
এই কথা জানে শুধু আমার বিধাতা।

আজ ছন্দ মহলে মিলছে দুটি মন,
মনে মনে বলবে ওরা কথা যে সারাক্ষন,
কথার মাঝে থাকবে গভীর ভালোবাসা,
ভালোবাসার মাঝে থাকবে দুটি মনের বেকুলতা।

476 total views, 3 views today

এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে

আপনার মন্তব্য লিখুন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন