গরম দুধ খাওয়ার উপকারিতা

গরম দুধ খাওয়ার উপকারিতা
4.3 (85%) 4 votes

গরম দুধ স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। প্রাচীনকাল থেকেই গরম দুধ নানা ধরনের শারীরিক সমস্যার ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। সারাদিনের ব্যস্ততার পর ক্লান্তি দূর করতে দারুণ উপকারী এক গ্লাস গরম দুধ। কারণ গরম দুধ ক্লান্ত পেশী সতেজ করতে সাহায্য করে। আগের দিনে দাদী নানীরা ঠাণ্ডা, কাশি লাগলে মধু মিশানো গরম দুধ খাওয়ার কথা বলতেন। এখনও অনেকেই ঠান্ডা জ্বর বা অসুখের সময় গরম দুধ পান করে থাকেন। আজকের এই লেখায় আমরা গরম দুধ খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জানব।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

গরম দুধ

গরম দুধ ঘুমের জন্য ভালো

রাতে শোয়ার আগে হালকা গরম দুধ খেলে ভালো ঘুম হয়। তবে সত্যিই ঘুমের সুবিধা হয় কি না, তা এখনো পরীক্ষা-নিরীক্ষায় প্রতিষ্ঠিত হয়নি। দুধের ট্রিপটোফ্যান নামক অ্যামিনো অ্যাসিড থেকে সেরোটনিনের সূত্রপাত ঘটে। এটা মস্তিষ্কে যে সংকেত পাঠায়, তা স্নায়বিক উত্তেজনা প্রশমনে সাহায্য করে। হয়তো এ কারণে দুধ খেলে সহজে ঘুম আসে। কিন্তু ঘুম আনার জন্য যথেষ্ট পরিমাণ ট্রিপটোফ্যান গরুর দুধে আছে কি না, তা এখনো প্রমাণিত হয়নি। প্রায় আড়াই লিটার দুধ খেলে হয়তো ঘুমের জন্য পর্যাপ্ত ট্রিপটোফ্যান পাওয়া যাবে। রাতে শোয়ার আগে এত বেশি তরল পান করলে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে। বড়জোর এক কাপ দুধ খাওয়া চলে। এতে কিছু উপকার হয়। অনেকেই আছেন যারা রাতে ঘুম না হওয়ার সমস্যায় ভোগেন। আর এর প্রভাব পড়ে তাদের কর্মক্ষেত্রে। চিকিত্‍সকরা বলছেন, খাওয়া দাওয়ার অভ্যাসে কিছু পরিবর্তন আনলে অনেটাই কাটিয়ে ফেলা যাবে এই সমস্যা। যাদের ক্যালসিয়ামের ঘাটতি রয়েছে, তাদের অনেকেরই ঘুমের সমস্যা হয়। তাই রাতে  ঘুমানোর আগে এক গ্লাস দুধ কিংবা এক কাপ দই খেয়ে ঘুমোতে যান, দেখবেন এতে উপকার পাবেন। আর সেই দুধ যদি গরম হয় তবে তো কথায় নেই। কারণ গরম দুধ মাংসপেশিকে শিথিল করে। ফলে ঘুম তাড়াতাড়ি আসে।

গরম দুধ এর অন্যান্য উপকারিতা

দুধের মধ্যে রয়েছে অন্য বেশ কয়েকটি অজানা উপকারিতা। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী –

ক্লান্তি দূর করে – কর্মব্যস্ততার পর ক্লান্তি দূর করতে এক গ্লাস গরম দুধ খুবই উপকারী। দুধ ক্লান্ত পেশি সতেজ করতে সাহায্য করে। এছাড়া, দুধ খেলে শরীরে মেলটনিন ও ট্রাইপটোফ্যান হরমোন নিঃসৃত হয়, এই হরমোনগুলো ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে।

হৃদপিণ্ড ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ – দুধে রয়েছে পটাশিয়াম যা হৃদপিণ্ডের পেশির সুস্থতা বজায় রাখে। তাছাড়া এর খনিজ উপাদান হৃদপিণ্ড সতেজ রেখে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণও করতে পারে।

চুলের পুষ্টি – দুধে আছে প্রচুর ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যামাইনো অ্যাসিড, যা চুলের জন্য খুব উপকারী। তাছাড়া দুধের ক্যালসিয়াম দাঁত ও হাড়ের জন্যও জরুরি।

তবে অপানার যদি হাইপার অ্যাসিডিটি থেকে থাকে তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আপনার দুধ এড়িয়ে চলাই ভাল।

মধু এবং গরম দুধ একত্রে খাওয়ার উপকারিতা

মধু মিশ্রিত দুধ খুবই ভাল একটি হেলথ ড্রিংক। এবার দেখে নিন যেভাবে তৈরি করবেন মধু ও দুধ মিশ্রিত হেলথ ড্রিংক। এক গ্লাস গরম দুধে এক টেবিল চামচ মধু ভাল করে মিশিয়ে নিন। যাতে মধু গ্লাসের তলায় থেকে না যায়। ডায়াবেটিস রোগীরা চিকিৎসকের পরামর্শে মধু দুধ পান করুন। এবার দেখে নিন উপকারিতা গুলো –

মনোবল বৃদ্ধি – সকালে এক গ্লাস গরম দুধে Hot milk মধু মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনাকে সারাদিনের কাজের এনার্জি দিবে। দুধের প্রোটিন এবং মধুর শর্করা মিশে আপনার মেটাবলিজমকে উদ্দীপিত করে থাকে। এই পানীয়টি ছোট বড় সবাই খেতে পারে।

হাড় গঠনে – গবেষণায় দেখা গেছে মধু Honey ধীরে ধীরে খাদ্য থেকে পুষ্টি সারা দেহে পরিবহন করে থাকে। বিশেষ করে দুধের ক্যালসিয়ামকে মধু সারা শরীরের পরিবহন করে থাকে। তাই মধু দুধ শুধুমাত্র শরীরে পুষ্টি প্রদান করে থাকে না পাশাপাশি হাড় মজবুত করে থাকে।হাড়জনিত রোগ প্রতিরোধ করে থাকে।

স্ট্রেস দূর করতে – গরম দুধ এবং মধু নার্ভকে শিথিল করে স্ট্রেস কমিয়ে থাকে। আপনি যদি অনেক বেশি দুশ্চিন্তায় থাকেন তবে দিনে দুইবার দুধ, মধু পান করুন। এটি আপনাকে রিল্যাক্স করে দিবে।

অনিদ্রা দূর করতে – বিভিন্ন ঘুম বিশেজ্ঞদের মতে গরম দুধ এবং মধু ঘুম পারাতে সাহায্য করে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এক গ্লাস দুধ এবং মধু মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনার ঘুম আনাতে সাহায্য করবে। আপনার অনিদ্রার সমস্যা থাকলে নিয়মিত এটি পান করুন।

বার্ধক্য রোধ করতে – তারুণ্য ধরে রাখতে চান? তাহলে প্রতিদিন  দুধ (Hot milk) এবং মধু পান করুন। দুধ এবং মধুকে “জীবনী সুধা” বলা হয়। গ্রিক, রোমান, মিশরীয় এবং অনেক ভারতীয়দের তারুণ্য ধরে রাখার জন্য নিয়মিত গরম দুধ এবং মধু পান করতেন। শুধু তাই নয় এটি আপনাকে দীর্ঘায়ু করতে সাহায্য করে।

অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান –গবেষণায় দেখা গেছে দুধ এবং মধু Honey একসাথে অনেক ভাল অ্যান্টি ব্যায়টিক হিসেবে কাজ করে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করে, পেট ব্যথা, ঠাণ্ডা কাশি দূর করে থাকে।

হজমে সাহায্য করে – আপনার যদি হজমে সমস্যা হয় বা পেট ফুলে থাকে তবে গরম দুধ এবং মধু মিশিয়ে পান করুন। এটি পেটের গ্যাস দূর করে পেট ব্যথা কমিয়ে দিবে।

140 total views, 1 views today

এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে

আপনার মন্তব্য লিখুন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন